pillow_103903.jpg

বালিশ নিয়ে খুঁতখুঁতানি নেই এমন মানুষ কমই পাওয়া যায়। কেউ এক বালিশে ঘুমাতে সাচ্ছ্বন্দ্য বোধ করেন, কেউ দুই বালিশে, কেউ নরম বালিশ চান, আবার কেউবা শক্ত বালিশ না হলে ঘুমাতেই পারেন না। আপনার সাধের বালিশ যদি পুরনো হয়ে যায়, তাহলে নতুন বালিশ নির্বাচন করবেন কিভাবে? জেনে নিন কোন ধরনের বালিশ ঘুমের জন্য আদর্শ।

– বালিশের আকৃতি আপনি নিজের পছন্দে নির্বাচন করতে পারবেন। তবে খুব বেশি ছোট বালিশ নিবেন না। মাঝারি, প্রশস্ত, স্ট্যান্ডার্ড, কিং, কুইন ইত্যাদি নানা সাইজের বালিশ থেকে আপনার পছন্দসই একটি বালিশ বেছে নিতে পারেন।

– বেশি উঁচু কিংবা একদম নিচু বালিশ ঘুমের জন্য তো বটেই, স্বাস্থ্যের জন্যও ক্ষতিকর। বালিশের উচ্চতা হওয়া চাই মাঝারি। বালিশের উচ্চতা এমন হওয়া উচিত যেন কাঁধ বা ঘাড় বাঁকিয়ে শুতে না হয়। আপনার যদি পাশ ফিরে শোওয়ার অভ্যাস থাকে তাহলে বিছানায় শোওয়ার পরে কাঁধের সঙ্গে গলার উচ্চতা যতটুকু ততটুকুই হওয়া উচিত বালিশের উচ্চতা। আর যদি আপনি চিৎ হয়ে শুতে পছন্দ করেন তাহলে আপনার ঘাড় এবং বালিশের উচ্চতা সমান্তরালে থাকা উচিত।

– বালিশের উপরকরণ প্রাকৃতিক হওয়াই ভালো। ফোমের বালিশ বেশ নরম হলেও ঘুমানোর জন্য আরামদায়ক না। এধরনের বালিশ স্বাস্থ্যের পক্ষেও ক্ষতিকর। তুলার তৈরি বালিশই ভালো ঘুম এবং স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।

– বালিশের কভার যেন খসখসে না হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। বিশেষ করে কারুকাজ করা চাদরের সঙ্গে যে বালিশের কভারগুলি দেওয়া থাকে সেগুলি রাতে ঘুমানোর সময় ব্যবহার না করাই ভালো। নরম সুতি কাপড়ের কিংবা সার্টিন কাপড়ের কভারই ভালো।

One thought on "[লাইফ স্টাইল] ঘুম ভালো হওয়ার জন্য যেমন বালিশ চাই…"

  1. Farhan Monsur Oliur Author says:
    এসব কি পোস্ট


Leave a Reply