জীব-জগৎ বড়ই অদ্ভুত। প্রতিদিন ঘটে চলেছে
মজার, বিস্ময়কর সব ঘটনা। চলতে ফিরতে আমরা
বিষয়গুলো দেখি, শুনি অথচ প্রকৃত তথ্যটা অনেক
সময় জানি না। এমন ঘটনা হরহামেশাই ঘটে, ঘটছে।
সাধারণের মধ্যে লুকিয়ে থাকা অসাধারণ, মজার,
অদ্ভুত কিছু সত্য সব ঘটনা। বাচ্চা আমরা সবাই চিনি।
এটাও জানি হাতি একটু বেশিই খায়। কিন্তু তাই বলে ৮০
লিটার! অদ্ভুত হলেও সত্য, হাতির বাচ্চা দিনে প্রায়
৮০ লিটার পর্যন্ত দুধ খেতে পারে।
অদ্ভুত হলেও সত্য যে, পানি ছাড়া একটি ইঁদুর একটি
উট থেকে বেশি সময় বাঁচতে পারে!
আমরা সারাদিন নানা পিঁপড়া দেখি। কিন্তু আমরা এটি কি

জানি যে পিঁপড়া কখনো ঘুমায় না!
আমরা সবাই জানি, মৌমাছি মধু তৈরি করে। কিন্তু জানেন
কি! প্রায় ২০ হাজার প্রজাতির মৌমাছির মধ্যে মাত্র চার
প্রজাতির মৌমাছি মধু তৈরি করতে পারে। বাকিরা পারে
না। ঘুঘু পাখি ও পিঁপড়ার কাহিনী আমরা সবাই জানি। কিন্তু
এটা কি জানি, পিঁপড়া পানির নিচে দু’দিনও বেঁচে
থাকতে পারে। বিড়াল আমাদের অতি পরিচিত একটি
প্রাণী। অন্ধকারে আমরা তেমন কিছু না
দেখলেও একটা বিড়াল অন্ধকারে মানুষ থেকে
প্রায় ৬ গুণ ভালো দেখতে পারে। টাপেটাম
লুসিডামের জন্য এটি পারে বিড়াল। এটি একটি বাড়তি
লেয়ার যা আলো ধারণ করে রাখতে পারে!
বিড়ালের কান দেখতে বেশ সুন্দর। কিন্তু
জানেন কি, একটি বিড়ালের প্রতিটি কানে ৩২টি করে
পেশি থাকে! ঠা…ঠা… করে কাঠে ঠোকর দেয়া
কাঠঠোকরা আমরা প্রায় সবাই দেখেছি। কিন্তু
কখনো কি ভেবেছি কত দ্রুত ঠোকর দেয় এই
কাঠঠোকরা? একটি কাঠঠোকরা সেকেন্ডে
প্রায় ২০ বার পর্যন্ত কাঠে ঠোকর দিতে পারে!
যখন আমরা কোনো কিছু স্পর্শ করি, তখন ঘণ্টায়
১২৪ মাইল বেগে তথ্যটা মস্তিষ্কে পৌঁছায়।
ok Thanks Stay with Trickbd

3 thoughts on "অদ্ভুত হলেও ঘটনা সত্যি!"

  1. rakibul akash Contributor says:
    thank you onek valo kesu jante parlam.


  2. Main NISHAT বাংলার রঙ Contributor says:
    মামা ধারুন সব লেখা শেয়ার তরার জন্য অনেক ধন্যবাদ।

Leave a Reply