অনলাইন আর্নিং এখন আর অবাস্তব
কিছু নয় এবং এর অনেক পথই খোলা
আছে। তবে কিছু কিছু ভাই বুঝে
হোক না বুঝে হোক আর সঠিক
আরনিং সাইট না চিনেই হোক
স্কাম বা ভুয়া সাইটের লোভনীয়
আয়ের প্রচার চালিয়ে যেমন
নিজেও হয়রান এবং বিভ্রান্ত হন,
তেমনি আমাদেরও রীতিমত
ধোকায় ফেলে দেন। তাই আমি আজ
আসল অনলাইন আরনিং সাইটের
পরিচয় ও পদ্ধতি সম্পর্কে বলবো
যাতে কেউ প্রতারিত না হন। আর
আপনি চাইলেই অনলাইন থেকে আর্ন
করতে পারবেন, তা ১০০% নিশ্চিত?
প্রকৃত আরনিং সাইটের প্রথম
বৈশিষ্ট্যই হল–সাইট কর্তৃপক্ষ এবং
আয়কারীদের সাথে
বিভিন্নভাবে যোগাযোগস্থাপন
হয়ে থাকে। এমনকি সেই সাইটের
ফোরামের মাধ্যমে বা FAQ এর
মাধ্যমে তারা তাদের প্রশ্নোত্তর
ও সদস্যদের নানা সমস্যার সমাধান
দিয়ে থাকে। আয়কারী সদস্যরাও
তাদের মতামত-পরামর্শসহ
লেখালেখির সুযোগ পান; মানে
জবাবদিহিতা আছে মানে যাকে
বলে ইন্টারেক্টিভ সাইট। ফলে
কোন সন্দেহ, বিভ্রান্তি যেমন
থাকেনা তেমনি সেই সাইটের
সদস্যও দ্রুত বেড়ে যায় এবং
লেনদেনের অস্বচ্ছতাও থাকে না।
পেমেন্টও নিশ্চিত থাকে।
অন্যদিকে স্কাম বা ভূয়া সাইটের
প্রথম কাজই হল–কাউকে ধরা না
দেয়া বা কারো প্রশ্নের কোনরকম
জবাব না দেয়া আর জবাবদিহিতা
ও কোন পেমেন্টের তো প্রশ্নই
আসেনা। শুধু সাইটের কিংবা
বিজ্ঞাপনের মাধ্যমেই অবাস্তব
অফার দেয়া এবং লোভ দেখানো;
বড়কথা ওসব সাইটে কোন ফোরাম
থাকেনা বা FAQ পদ্ধতিও নেই।
সঠিক ও প্রকৃত আরনিং সাইটের আয়
যৎসামান্যই হয়ে থাকে স্মরন
রাখবেন । গুগল এডসেন্স থেকে আয় হয়
সত্য, তবে বড় ঝামেলার। আপনার
থাকতে হবে একটা ওয়েবসাইট, যা
গুগল থেকে বিজ্ঞাপন প্রচারের
জন্য অনুমোদিত হতেই হবে। অনুমোদন
পাওয়া অনেক কঠিন, আমি ৬ মাস
যাবত আমার ওয়েবসাইট সাবমিট
করেও এখনও অনুমোদন পাইনি।
অনুমোদন পেলে তারা আপনার
সাইটে নিয়মিত বিজ্ঞাপন সরবরাহ
করবে এবং আপনার পাঠক যদি
কোনো বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে
নির্দিষ্ট সময় ধরে ভিজিট করে,
তবেই আপনার একাউন্টে ১,২ বা ৫/১০
সেন্ট ক্ষেত্রবিশেষে ১/২ ডলার
পর্যন্ত জমা হবে। তাও আবার আপনি
নিজে কিন্তু কোন এডে ক্লিক
করতে বা কাউকে উৎসাহিত করতে
পারবেন না। শর্ত ভাংলেই একাউন্ট

বাতিল বা ব্লক হবে।
তবে যাদের সাইট নেই তারা কি
আয় করবেন না? অবশ্যই করবেন এবং
এজন্য আছে PTC (paid to click/paid per
click) পদ্ধতি। এটা সবচে সহজ পদ্ধতি।
কারন অধিকাংশ সাইট
প্রতিক্লিকে ১-১০ সেন্ট পর্যন্ত পে
করে। তবে আমি আপনাদের কিছু
টেকনিক জানাবো যাতে PTC’র
মাধ্যমেই ভাল আয় করতে পারেন।
প্রথমেই আপনাকে একটি এলা্র্টপে
একাউন্ট তৈরি করতে হবে যদি না
থাকে।( https://www.alertpay.com )
গিয়ে Personal Pro Catagory তে একটি
একাউন্ট খুলে তা ভেরিফাই করুন।
ভেরিফাইড না হলে সমস্যা হবে।
এলার্টপে পাতাটি ওপেন হলে
একাউন্টের জন্য তিনটি অপশনের
মধ্যে পারসোনাল প্রো অপশনটিতে
ক্লিক করে টিক চিহ্ণিত দেখালে
নেক্সট বাটনে ক্লিক করতে হবে
এবং পরের পেজ এলে আপনার
প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে নিবন্ধন শেষ
করবেন । আবার বলি- Personal Pro
Catagoryতে একাউন্ট খুলে তা
ভেরিফাই করতে হবে। ভেরিফাইড
না হলে আয় করলেও কিন্তু ঝামেলা
হতে পারে। ভেরিফাইয়ের জন্য
আপনার একাউন্টে তিনটি অপশনের
মধ্যে A ও C অপশন দুটোই বেস্ট। A-তে
আপনার ব্যাঙ্কের তথ্য দিয়ে এবং –
C-তে আপনার মোবাইল ফোন
নম্বরটি ভেরিফাইড করতে হয়।
এখন আয় করতে চাইলে আপনাকে
ভালো PTC সাইট খুজে বের করতে
হবে। নেট-এ অনেক PTC সাইট আছে
যার অধিকাংশই Scam site যা আগেই
বলেছি। এই সাইটে ভালো ও
বিশ্বস্ত সাইটের অনেক লিঙ্ক আছে,
সেখান থেকে পছন্দমত সাইট বেছে
নিয়ে সাইন আপ করে কাজ শুরু করে
দেখতে পারেন।
এ সাইটে দেয়া বামপার্শ্বের Legit
ও ডানপাশের Elite সাইটগুলো অথবা
পছন্দমত সাইটে রেজিষ্ট্রেশনের পর
লগ ইন করে কাজ শুরু করুন। আমি একটা
সবচে ভালো সাইটের উদাহরন
দিচ্ছি কিভাবে কী করতে হবে।
আপনি এই লিঙ্কে–http://www.neobux.com/?r=Rafiuzzaman গিয়ে আগে নিবন্ধন
ও লগইন করলে এই সাইটে View
Advertisements দেখতে পাবেন,
সেখানে ক্লিক করে পেজটি
ওপেন করলে দেখতে পাবেন
আপনার জন্য কিছু এড আছে যেগুলো
আপনাকে ভিজিট করতে হবে।
একটা এডের ওপর ক্লিক করলে
ছোটো লাল গোলচিন্হ আসবে, যার
ওপর ক্লিক করলেই এডটি ভিন্ন
ট্যাবে ওপেন হবে। কিছুক্ষন ওয়েট
করলেই মেসেজ আসবে যে,
Advertisement validated! $0.001 were
credited in your account.
এভাবে হলুদ তারকাওলা সব এড
ভিজিট করুন। ১০/১২টা সাইটের সব এড
দেখতে ১ ঘন্টার মত লাগবে। অন্য
সাইটগুলোর আপনার একাউন্টে
আরনিং এরিয়া বা ভিউ এড বা
ব্রাউজ এড অপশনে ক্লিক করলেই
দেখবেন এডভারটাইজমেন্ট হেয়ার
লিখিত যার নিচে কিছু রেডি এড
আছে–যা আপনাকে ক্লিক করে
কিছু সময় অপেক্ষা করতে হবে আয়
করার জন্য। আরনিং দেখতে হলে
মাই একাউন্টে ক্লিক করলে তা
দেখা যাবে। আপনি এভাবে
প্রতিদিন ১০/১২টি সাইটের এড
ভিজিট করে মাসের শেষে আপনার
কিছু ডলার জমা হবে যা এলার্টপের
মাধ্যমে ক্যাশ করতে পারবেন।
পেপল একাউন্ট এদেশে চালু নেই,
কাজেই যারা পেপলের মাধ্যমে
টাকা পাবেন বলে প্রচার করে–
তারা অবশ্যই ভুয়া ও মিছেকথা
প্রচার করে, তা নিশ্চিত জানবেন।
তবে আয় বাড়াতে তাহলে কী
করতে হবে? আপনার রেফারেল
বানাতে ও বাড়াতে হবে অথাৎ
আপনার মাধ্যমে আরো অনেককে ঐ
সাইটে জয়েন করাতে হবে।
উপরোক্ত সাইটগুলোর Banner বা
Promotion tools-এ আপনার রেফারেল
লিংক পাবেন, এই লিংকটা
বিভিন্ন ফোরাম, ব্লগ, সামাজিক
নেটওয়া্র্ক সাইটে দি্য়ে অন্যদের
জয়েন করতে ইনভাইট করুন। প্রতিদিন
এজন্য আরো ৩০/৪০ মিনিট কাজ করুন।
১ মাসে আপনি ১০০ বা আরো বেশী
রেফারেল বানাতে পারলে
আপনার ইনকাম অনেক বেড়ে যাবে।
PTC থেকে ভাল আয় করার সবচে
গুরুত্বপুর্ন একটা টেকনিক আছে,
সেটা হল রেন্ট রেফারেল। আপনি
রেফারেল ভাড়া নিতেও
পারবেন। আপনার আয়ের একটা অংশ
রেন্ট রেফারেল এর জন্য ব্যয় করতে
পারেন বেশী ইনকামের স্বার্থে।
একাজে ইনভেষ্টও করতে পারেন
আপনার এলার্টপেতে ডলার জমা
থাকলে। নিওবাকস সাইটে আপনার
ইউজারনেম-এ ক্লিক করলে
রেফারেল ট্যাব পাবেন,
রেফারেল-এ ক্লিক করলে আপনি
রেন্ট রেফারেল অপশন পাবেন। ১০০
জনকে রেন্টের জন্য ১মাসে ২০
ডলার খরচ লাগবে মাসিক। আপনি
যদি ১০০ জনকে রেন্ট বা ভাড়া
করেন তাহলে ঐ ১০০ জনের আয়ের
একটা পারসেন্টেজ আপনিও
পাবেন। ফলে আপনার ইনকাম খুব দ্রুত
বেড়ে যাবে। এভাবে ১০/১২টা
সাইট থেকে কয়েক মাস পর মাসিক
৩০০ থেকে ১০০০ ডলার পর্যন্ত আয়
করা অসম্ভব নয় মোটেই। সুতরাং
প্লান নিয়ে আজই নেমে পড়তে
পারেন।

One thought on "Neobux Online Earning"

  1. MD SHAWON MD SHAWON Author says:
    Andrew phon deye hobe??


Leave a Reply