আসসালামু আলাইকুম। সবাই কেমন আছেন আশা করি ভালো আছেন।

গত পর্বে আলোচনা করেছিলাম মার্কেট পরিচিতি নিয়ে আজকে আলোচনা করব বিনান্সে কিভাবে ট্রেড দিতে হয় সে সম্পর্কে।

চলুন তাহলে শুরু করা যাক

কিভাবে সেল অর্ডার দিবেন?

সেল অর্ডার দেওয়ার জন্য প্রথমে আপনাকে নিচের ছবির মতো সেল অপশন যেতে হবে

সেল অপশন এ যাওয়ার পরে
Price: এই সেকশন এ কত দামে আপনি আপনার কয়েন সেল দিতে চান তা লিখুন
Amount: এই অপশন এ আপনি কত বিটিসি সেল করতে চান সেটা লিখুন এখানে নিচে 25% 50% 75% 100% এই অপশনগুলোতে ক্লিক করে আপনি আপনার মোট রিজার্ভ এমাউন্ট এর 25% 50% 75% 100% সিলেক্ট করতে পারবেন।
Total: এখানে আপনার অর্ডারটি ফুলফিলড হলে আপনি কত বিটিসি পাবেন সেটা দেখাবে।

কিভাবে বাই অর্ডার দিবেন?

বাই অর্ডার দেওয়াটাও সেল অর্ডার দেওয়ার মতোই সেটা আপনি নিচের ছবিটা দেখলেই বুঝতে পারবেন।

এখানে একটা কথা বলে নেওয়া ভালো আপনি উপরে দেখতে পারছেন Limit, Market, Stop Limit নামে কয়েকটি অপশন রয়েছে এখানে Limit অপশন থেকে আপনি ইচ্ছামতো প্রাইস এ বাই/সেল অর্ডার পোস্ট করতে পারবেন। Market এই অপশন এ বাই/সেল অর্ডার দিলে আপনার অর্ডারটি সেই সময় এ কয়েন এর এর মার্কেট প্রাইস অনুজায়ি অর্ডার পোস্ট হবে।

Buy Orders: এই অপশন আপনি যখন বাই/সেল অর্ডার পোস্ট করবেন তখন সেই অর্ডারগুলো এই অপশন এ দেখাবে এখান থেকে আপনি আপনার অর্ডারটি ফুলফিলড হওয়ার আগে পর্যন্ত Cancel করতে চাইলে করতে পারবেন। এবং আপনার অর্ডারটি এই অপশন এ ততক্ষন পর্যন্ত থাকবে যতক্ষন পর্যন্ত অন্য কোন ট্রেডার আপনি যেই প্রাইসে বাই/সেল অর্ডার দিয়েছেন সেই প্রাইসে সেল/বাই অর্ডার দিবে। আপনি যখন বাই/সেল অর্ডার দেন তখন সেটা বাই বা সেল অর্ডার কলামে শো করে।

বাই সেল অর্ডার এর মাধ্যমে কিভাবে লাভ করবেন?

এর আগের পোস্ট এ আমি আপনাদের বলেছিলাম ট্রেডিং এ লাভের নিয়ম হলো “buy Low, Sell High” অর্থাৎ কম দামে কিনে বেশি দামে বিক্রি করা নিচে আমার একটা ছোট ট্রেড হিস্টোরি দেখুন

এখানে দেখুন আমি যেই দামে সেল করছি সবসময় তার থেকে কমদামে বাই অর্ডার দিছি যার ফলে আমার লাভ হয়ছে। একটা কথা আছেনা টাকাই টাকা বারে এই ক্ষেত্রে ব্যাপারটা ঠিক সেই রকম আপনি যত বড় এমাউন্ট এর ট্রেড দিবেন আপনার লাভের অংকটাও তত বড় হবে। তবে কখনোই লোভে পরে সম্পূর্ন এমাউন্ট ট্রেড দেওয়া উচিত নয় কারন একবার লস হলে আপনার সর্বস্ব হারাতে হবে সবসময় চেষ্টা করবেন ছোট ছোট ট্রেড দিয়ে ছোট ছোট লাভ করতে এতে আপনার লস খাওয়ার চান্স কমে যাবে।

ক্রিপ্টো ট্রেডিং এ লস কিভাবে হয়?

ক্রিপ্টো ট্রেডিং এ লাভ কিভাবে হয় সেটাতো জানলেন এবার আসি ক্রিপ্টো ট্রেডিং এ লস কিভাবে হয় সেই কথাই। ধরে নেই আপনি একটি কয়েন কিনলেন ৮০০$ প্রাইসে আর আশাই আছেন দাম ১০০০$ হলে আপনি বিক্রি করে দিলে আপনার ২০০$ লাভ হবে কিন্তু দেখা গেলো কয়েন এর দাম আর বাড়ল না বরং আরো কমে গেলো সেক্ষেত্রে আপনি যদি ৮০০$ এ কিনে ৬০০$ এ সেল করে দেন তাহলে আপনার লস হবে ২০০$ এমতাবস্থাই আপনার উচিত কয়েনগুলো হোল্ড করা কারন আপনার কেনা কয়েনটি যদি কোন পপুলার কয়েন হয় তাহলে এর দাম একদিন ঠিকিই বারবে। আবার ধরি আপনি ৮০০$ দিয়ে কয়েন কিনে ১০০০$ সেল করে দিলেন কিন্তু দেখা গেলো আপনার বিক্রির পরে দাম আরো বেড়ে ১৫০০$ হয়ে গেলেও এক্ষেত্রে আপনার ২০০$ লাভ হলেও আপাত দৃষ্টিতে এটাকে লস হিসেবে ধরা হয় কারন এখন বিক্রি করলে আপনার আরো ৫০০$ বেশি লাভ হতো।

এইযে কয়েন এর দাম কমা বারা করছে এটা কি শুধু আপনার কল্পনার উপর করছে উত্তর হলো না কয়েন এর প্রাইস কমা বাড়া অনেকগুলো বিষয় এর উপর নির্ভর করে যেমন কয়েন এর চাহিদা বারলে কয়েন এর দাম বাড়ে
আবার কয়েন এর চাহিদা কমলে কয়েন এর দাম কমে। আবার কয়েন এর সাপ্লাই যদি চাহিদার তুলনাই কম হয় তাহলে সেই কয়েন এর দাম খুব তারাতারি বৃদ্ধি পাই। আবার বিভিন্ন ঘটনা পরিস্থিতিও কয়েন এর দাম কমা বা বাড়ার জন্য অনেকাংশে দায়ী যেমন ২০১৪ তে MtGox হ্যাক হওয়ার কারনে বিটকয়েন এর দাম অনেক কমে গেছিল। আবার এখন আমরা অনেকেই জানি বিটকয়েন এর দাম এখন অনেক কমে গেছে এর কতকগুলো কারন থাকতে পারে যেমন প্রতি বছর ফেব্রুয়ারিতে চাইনার নতুন বছর উৎসব “Lunar New Year” পালিত হয় যাতে কয়েকশ বিলিয়ন ডলার খরচ হয় আর পৃথিবির ক্রিপ্টোকারেন্সির অধিকাংশই যখন চাইনার দখলে তখন প্রতি বছর এই সময়ে ক্রিপ্টোকারেন্সি সেলিং এর পরিমান বেরে যায়। আবার কোরিয়ার বিটকয়েন এর উপড় নিষেধাজ্ঞা জারি বিটকয়েন এর দাম কমার ক্ষেত্রে ভুমিকা রাখে। আবার কিছু বড় বড় ট্রেডার আছে যারা এর সুযোগ নিয়ে এক ধরনের আতংক ছড়াই যাতে কয়েন এর দাম আরো কমে যায় আর তারা আরো বেশি পরিমানে কয়েন কিনতে পারে ট্রেডিং এর ভাষায় একে FUD বলে FUD এর পুর্নরুপ Fear, uncertainty and doubt। আবার অনেক সময় বড় সুযোগ চলে আসে যখন কয়েন এর দাম হঠাত করে প্রচুর পরিমানে বেড়ে যাই তখন ট্রেডাররা দুশ্চিন্তাই পরে যান যে তার কয়েনগুলা এখন বিক্রি করা উচিত নাকি না ট্রেডিং এর ভাষায় একে FOMO বলে এই সময় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় যেন নিজেকে বলতে হয় “Make a fast decision: do I enter or leave it alone?” কারন এ ধরনের সুযোগ কিছু সময়ের জন্যই থাকে। এরকম আরো অনেক কারন রয়েছে ক্রিপ্টোকারেন্সির দাম কমা বা বাড়ার পেছনে।

এইকারনে লস না করে লাভে ট্রেডিং এর জন্য প্রয়োজন যেই কয়েন এ ট্রেড দিবেন সেই কয়েন সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা, প্রচুর মার্কেট এনালাইসিস এবং অভিজ্ঞতা আর সেই সাথে নিজের বুদ্ধিমত্তাকে কাজে লাগিয়ে আপনিও ক্রিপ্টো ট্রেডিং সেক্টর থেকে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারেন।

আজকে এই পর্যন্তই দেখা হবে আগামি পর্বে। পরবর্তিতে আলোচনা করব মার্কেট এনালাইসিস নিয়ে।

বাকি পর্বের লিংক

6 thoughts on "জেনে নিন ক্রিপ্টোট্রেডিং কি? এবং কিভাবে ক্রিপ্টোকারেন্সি ট্রেডিং করে ইনকাম করবেন পর্ব-৩।"

  1. Md. Alamin Md. Alamin Author says:
    ভাই এই কাজ টা একটু কঠিন তাই বেশি ক্লাইন্ট পাবেন না
    1. Nabil Mahmud Nabil Mahmud Author Post Creator says:
      eikhane abar client aslo koi theke
      1. Tanvir Tanvir Contributor says:
        Bro this is not hard work , easy earn system trade
  2. Admob Earn Trick Noyon Raj Author says:
    Carry on… Heard but non impossible 🙅
  3. kaushikpramanik Contributor says:
    ধরেন আমার কাছে 10,000 tk. আছে (BDT) এখন আমি Light coin কিনবো তাহলে কিভাবে কিনবো?
    1. Nabil Mahmud Nabil Mahmud Author Post Creator says:
      local market theke kinte hobe jemon bdte oneke sell kore tader kase theke kinte paren obossoy lokti trusted kina seta dekhe kinben

Leave a Reply