আসসালামু আলাইকুম। আশা করি সবাই ভালো আছেন। TrickBD এ এটা আমার দ্বিতীয় পোস্ট। আশা করি সবার পছন্দ হবে ইনশাল্লাহ।

তাহলে আজকের টপিক শুরু করা যাক।

আজ আপনাদের আজ আপনাদের কিছু সতর্কতা জানাবো বিকাশ প্রতারণা ও জালিয়াতি নিয়ে।

মূল কথা



ডিজিটাল ক্যাশ মিডিয়াম হিসেবে বাংলাদেশে বিকাশ অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। অনেক প্রতিষ্ঠান এবং ব্যাক্তির আর্থিক লেনদেন এখন বিকাশের মাধ্যমেই হয়ে থাকে। কিন্তু যতই এটি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে, বিকাশ নিয়ে প্রায় অনেককেই বিভিন্ন ধরণের প্রতারণা এবং ধোকাবাজির সম্মুখীন হতে হচ্ছে। তাই যারা ভবিষ্যতে এমন সমস্যা এড়িয়ে যেতে চান তাদের জন্য আজকের এই আর্টিকেল।

আপনি লটারি জিতে গেছেন, পাসওয়ার্ড দরকার


বিকাশের একটি কমন প্রতারণার ধরণ হচ্ছে আপনি লটারি জিতেছেন বা কোন প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে নগদ পুরস্কার পেয়েছেন। কিন্তু সেই টাকা একাউন্টে ঢুকানোর জন্য আপনার একাউন্টের পাসওয়ার্ড লাগবে। সাধারণ মস্তিস্কে চিন্তা করলে অবশ্যই এটি প্রতারণা বলে ধরা যায়। কিন্তু, যারা লটারি বা পুরস্কার শিউর করতে চান তাদের জন্য বলছি, কোন বিকাশ একাউন্টে টাকা ঢুকাতে বিকাশ একাউন্টের নাম্বার ছাড়া আর কিছু লাগে না। যদি আপনি বিকাশে টাকা ঢুকিয়ে থাকেন তাহলে দেখেই থাকবেন শুধু নাম্বার দিলেই দোকানদার বা ব্যাক্তি টাকা পাঠিয়ে দিতে পারে। বরং, পাসওয়ার্ড লাগে একাউন্ট এক্সেস করতে বা টাকা উঠাতে। আপনি যদি পাসওয়ার্ড দিয়ে দেন তাহলে খুব সহজেই একাউন্ট এক্সেস করে প্রতারনা চক্র একাউন্ট খালি করে তা ডিলিট করে দিতে পারে। এমতাবস্থায় বিকাশ কর্তৃপক্ষ আপনাকে কোন সাহায্য করতে পারবে না।

আপনার একাউন্টে ভুল করে টাকা চলে গেছে, টাকা ফেরত পাঠিয়ে দিন


অনেক সময় আপনাদের কাছে কল বা এস এম এস আসে যে আপনার বিকাশ একাউন্টে টাকা চলে গিয়েছে। সেই টাকাটা ফেরত পাঠানো দরকার। অনেকেই এস এম এস দেখেই টাকা পাঠিয়ে দেন। যার ফলে বড় ধরণের ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়। এস এম এস যে আসল নাকি নকল সেটি কিভাবে যাচাই করবেন?

এস এম এসে গিয়ে দেখবেন আপনার একাউন্টে টাকা ঢোকানর এস এম এসটি কোন নাম্বার থেকে এসেছে। যদি কোন পার্সোনাল নাম্বার যেমন 01764XXXXXX থেকে এসে থাকে তাহলে সেটি হচ্ছে সম্পূর্ণ ভুয়া এবং মিথ্যা। কারণ বিকাশের সকল ম্যাসেজ ‘bKash‘ থেকে এসে থাকে যার আলাদা কোন নাম্বার নেই। সুতরাং, যদি বিকাশ লেনদেন সম্পর্কিত ম্যাসেজ ‘bKash‘ থেকে না এসে থাকে তাহলে ধরে নেবেন আপনার সাথে প্রতারণা করা হচ্ছে।

অপরদিকে যদি সত্যিই ‘bKash‘ থেকে পাঠানো ম্যাসেজে দেখেন আপনার একাউন্টে টাকা ঢুকেছে তাহলে যে আপনাকে ফোন বা ম্যাসেজ দিয়েছে বা দেবে তার কাছ থেকে অরিজিনাল বিকাশ নাম্বারটি নিয়ে সেন্ড মানি করে খুব সহজেই ফেরত দিয়ে দিতে পারবেন। এর জন্যও আপনার একাউন্টের কোন এক্সেস বা পাসওয়ার্ড কাউকে দেয়া লাগবে না।

অশেষ ধন্যবাদ সবাইকে পোস্ট টি পড়ার জন্যে।
ভালো লাগলে অবশ্যই লাইক দিন এবং আপনাদের মতামত জানান।

ধন্যবাদ

Leave a Reply