একটা ছেলে এবং একটা মেয়ের প্রেম কাহানি ২০১৫ ইং ৷
গত ঈদুল-ফীতরের রোজার ভীতরে এই প্রেম সুত্রপাত ঘটে একটা ফেক ফেসবুক আই ডি থেকে ৷
আর এই প্রেমটা ছিল একতরপা এক পাগলামি ধরনের প্রেম ৷
ঘটনাটা প্রায় কত মাস যে বলতে পারছি না তবে গত রোজাতে মেয়েটা (ফেক আইডি) নাম্বার চায় কিনতু ছেলে টা নাম্বার দিতে চাইনা ৷
কেন জেন নাম্বার দিলো জিপি সিমের মেয়েটা বলে বিএল নাম্বার দিতে তখন ছেলেটা নাম্বার ছিলনা মানে বাংলালিনক সিম নাই ৷ তখন ছেলেটা তার মামত ভাইয়ের নাম্বার দিল ৷
কিছু দিন মানে ঈদের দু দিন পর মেয়ে না একটা ফেক আই ডির ধোকা বাজ একটা মেয়েকে দিয়ে কথা বলতে শুরু করল ৷ কয়েক দিন পর ছেলেটা মানে ঐ ফেসবুক আইডির মামাত ভাই মেয়েটার সাথে প্রতিদিন কথা বলতে শুরু করল ৷
মেয়েটা মানে ঐ ফেক আইডির যে মেয়েকে দিয়ে কথা বলাত সেই মেয়ের রিয়াল নাম্বার দিল তখন ৷ দুজনার মধ্যে না ছেলেটার মধ্যে এক পাগলামি দৌরানো শুরু করল ৷

মেয়েটার নাম ছিল মাহিমাঃ
আর ছেলেটার নাম ছিল শামিম
কিনতু মেয়েটা জানত ছেলেটার নাম সহনুর ৷

তখন শামিম নিদের পরিচয় মাহিমাকে দেয় মাহিমাও নিদের পরিচয় দেয় ৷
তাদের দুরুত্ব অনেক বড় কেননা শামিমের বাসা উওরবঙ্গ (গাইবান্ধা) আর মাহিমার বাসা দক্ষিনবঙ্গ (মেহেরপুর) তে, তাহলে কেমন করে প্রেমটা মজবুত হয় ৷
শামিম মেয়েটাকে অনেক ভালবাসত এক সময় ৷
তার ভালবাসা যে মিথ্যা, বোকামি, পাগলামি আর কতকি সে বুঝতে পার তিন মাস পর ৷

মেয়েটা অনেক চালাক চতুর পথ প্রানি ৷

শামিম এবং মাহিমার প্রেম আলাপঃ

মাহিমাঃ কলিং……
শামিমঃ নো রিচিভ……
কয়েক মিনিট পর শামিম কল ব্যাক ৷
মাহিমাঃ Hello..!
shamim: hello.! কেমন আছ ?৷সোনা ৷

mhima: ভাল আছি ! হানি ৷ তুমি কেমন আছ?
শামিমঃ আমিও ভাল আছি ৷
তুমি দুপুরে খাইছ ?
মাহিঃ হা খাইছি ৷ তুমি খাইছ ?
শামিঃ আমি খেলাম ৷ আচ্ছা তুমি কি খাইলে ?
মাহিঃ ব্রয়লার ৷ তুমি কি খাইলে ?
শামিঃ আমিও ব্রয়লার খেলাম ৷ আচ্ছা তোমার উচ্চতা কত?
মাহিঃ আমার উচ্চতা ৫ ফিট ৩ ইনচি ৷ তোমার কত?
শামিঃ আমারত ৫ ফিট ৩ ইনচি ৷
তুমি কোন ক্লাসে পড়?
মাহিঃ পরিনা ৷ তুমি কিসে পড়?
শামিঃ ডিগ্রীতে ২য় বছর ৷ তুমি কি সত্যিই পরনা ৷
মাহিঃ না ৷
এই ভাবে চলে দুজনার প্রেম তিন মাস ৷
মাহিমা যে মিথ্যা বলেছিল একসময় একটা ছেলেকে দিয়ে কথা বলবার পর থেকে বুঝেছিল শামিম ৷
অনেক রাত দিন কথা বলতে বলতে এক পর্জায় মাহিমা বলে শামিম তুমি কবে আসবে মেহেরপুরে ৷
শামিম বল ঈদের পরে ৷ এই বলে কেয়েক দিন যায় ৷
হাজারো মিথ্যার মাঝে লুকিয়েছিল শামিমের ভালবাসা ৷
তারা দুজনে SMS chat শুরু করল ৷ তখন মাহিমা নিচের এই sms টা দিলো তখন শামিম খুব যতনে রেখে দিল ৷

শামিম ঠিক করল ঈদের পর যাবে মেহেরপুর আনবে প্রেমের সুর ৷
কেন যানি শামিম কথা গুলা মানে মাহিমার বিষয়ে পরিবার সহ বন্ধুদের মাঝে আলোচনা করল ৷
তাকে সবাই নিষেধ করল কার কথা কে শুনে ৷ শামিমত ছিল প্রেম পাগল ৷ মাহিমার প্রেমের সাগরে তখন মাছ ধরে বেরাত ৷
অনেক মানা তারপর মাহিমার দুরব্যাবহার শামিমকে ক্ষেপে তুলতে শুরুকরে ৷
আর এই ভাবে ঈদুল-আজহা পার হয়ে গেল মাহিমা তখন বলল কে গো জান আসবে না মেহেরপুরে ৷ শামিম উওর দিল না ৷ আমি যাইতে পারবনা আমার কাছে টাকা নাই ৷
তার কিছু দিন পর মাহিমা নতুন একটা মোবাইল কিনল আর বদলে গেল সবকিছু ৷
মাহিমা তখন তার ফোন নিয়ে ব্যাস্ত কখনো ফোন বন্ধ কখনো কল কেটে দেয় ৷
মাঝে মাঝে অন্য ছেলেদের দিয়ে বলাই আমি কার বয় ফ্রেন্ড , বর ৷
একদিন অন্য একটাছেলেকে দিয়ে কথা বলালো আর সেদিন ছেলেটার আচারন এবং মাহিমার বেয়াদবি দুটোয় শামিমকে খুব দুঃখ এবং ক্ষেপে তোলে ৷ অনেক কান্না করছিল শামিম মনে মনে বলল যদি আজ তুমি আমার কস্ট দিলে একদিন এই কস্ট তোমার হবে ৷
এতচা পতারনা ভালনা একদিন নিজেও একই পতারনায় পরবে ৷
২২ দিন শামিম সিম খুলে রাখেছিল ৷ ২২ দিন পরে যখন শামিম ফোন দিলো উওর পেল কে? কথাযয থেকে বলছেন ৷ কাকে চাই কি নাম আপনার ৷
শামিম কুকিল কন্ঠে বলল আমি
আমি মাহিমা আমি ৷
তখন মাহিমা বলল ওহ আপনি এতদিন পরে ফোন করলে যে ৷
মাহিমা সব ভুলে গেল তার কথা এবং নিস্টুর আচারন ৷ তবুও শামিম বললনা ফোনটা কি করে ভুল করলাম ৷ কেননা শামিম আবার নতপন করে ভাঙ্গা প্রেম যদি জোড়া লাগে ৷
সব চেস্টাযয বৃথা আজকে আবার মাহিমার সেই খারাপ আচারন ৷ হয়তাবা শামিম তাকে কোনদিন ভুলতে পারবে না ৷ তবুও আর কোন দিনফোন করবে না এমন প্রতিঙা করল শামিম ৷
আজকে ছেলেটা বলল প্রেম করছি তোর সমেস্যা আছে তুই কেন বারবার ফোন দেস বলবি ৷ শামিম কোন কথা বলল না নিরবে শুনেগেলো ৷ আরবলল কোনদিন এই মাহিমার সাথে কথা বলল ব না
আর রক্ত দিয়ে প্রেম বিশর্জন দিলো শামিম

4 thoughts on "কেউ বুঝলনা আমারে তুমিও বুঝলেনা মাহিমা/ছনিয়া"

  1. Arafat Rahaman Arafat Rahaman Contributor says:
    অনেক ভাল লিখছেন ভাই


  2. SAJIB DH Sajib Contributor says:
    গল্পটা অনেক ভালো লাগল
  3. HM Reza rezaul_a76 Contributor says:
    valoi laglooooo
  4. Arafat Rahaman Arafat Rahaman Contributor says:
    ভালোভাবে বললে পরিবেশ টা সুন্দর থাকে ভাইয়া 🙂

Leave a Reply