লিনাক্স এর মন কাড়ানো কর্নেল Elementary OS

সবাইকে সালাম জানিয়ে আজকের টিউন শুরু করলাম।  অনেক লিনাক্স লাভার আছেন অনেকেই অনেক অপারেটং সিস্টেম নিয়ে জানতে চান।

আমি প্রথম দেখাতেই এলিমেন্টরি ওএস এর প্রেমে পরে যাই।  এত সুন্দর ইন্টারফেস আমাকে মুগ্ধ করে। আপনাদের ত অবস্যই করবে।

প্রথম দেখায় উপরে একটা ট্রান্সপারেন্ট প্যানেল, নিচে একটা ডক। সবই খুব সিম্পল, কিন্তু খুব সুন্দর, তাই না?

আমাকে এর আইকন প্যাক, সাউন্ড ইফেক্ট এগুলো বারবার মুগ্ধ করেছে। বিশেষ করে এনিমেশনগুলো, একদমই সিম্পল কিন্তু চোখে বড় শান্তি দেয়। এগুলো আসলে চালালেই ফিল করা সম্ভব। প্রত্যেকটা অ্যাপের ইন্টারফেসও একইভাবে সিম্পল, কিন্তু চোখে খুব শান্তি দিবে। বিশেষ করে অ্যাপসেন্টারটা খুব ভালো লেগেছে।

এলিমেন্টরী মিন্টের মত স্ট্যাবল উবুন্টু ভিত্তিক। এটার রিলিজ শিডিউল সেভাবে নির্দিষ্ট নয়। মিনিমালিস্টদের জন্য এটা খুব ভালো। ফ্রেশ একটা ডেস্কটপ পাবেন, বাড়তি অ্যাপ বোঝাই করা নেই, আর আপনার পছন্দের অ্যাপগুলো ডাউনলোডের জন্য আছে একটা অ্যাপ সেন্টার।

তবে, এই বিষয়টা সবার অবশ্যই ভালো লাগবে না। কারণ অন্য বেশিরভাগ ওএস শুরুতেই একটা রেডি ডেস্কটপ প্রভাইড করলেও এলিমেন্টরী অফিস, গ্রাফিক্স ডিজাইন, ওয়েব ব্রাউজিং প্রভৃতি অ্যাপ ডাউনলোড করে নিতে হবে।

আমি একটু সংক্ষেপে এখন বলি।

প্রথমে এতে বাংলা ফন্টগুলো ঠিকভাবে দেখা যাচ্ছিলো না। ফন্ট ইন্সটল ও ল্যাঙ্গুয়েজ প্যাক আপডেট করতে হলো। কিন্তু সংযুক্ত Epiphany নামের ওয়েব ব্রাউজারে বাংলা তাও ঠিকমত দেখাচ্ছিলো না। ফায়ারফক্স ডাউনলোড দিতে হলো। সংযুক্ত বাংলা লেআউটে বাংলা লিখতে গিয়েও দেখি সমস্যা হচ্ছে। ওপেন বাংলা ইন্সটল দিলাম। সব মিলিয়ে শুরুতে বেশ ভোগান্তি গেছে আরকি…!

যেমন ধরুন, এতে মিনিমাইজ বাটন নেই! উইন্ডো বর্ডারের একপাশে ক্লোজ আর একপাশে ম্যাক্সিমাইজ বাটন। এরপর এমনিতে তারা থিম আর আইকন বদলানোর সুযোগ দেয় না। তবে অবশ্য এলিমেন্টরী টুইক টুলের সাহায্যে ঠিক করে নিতে পারবেন। মূলত এলিমেন্টরী একটা স্ট্যাবল ওএস দিতে চায় বলে কিছু ফিচার ব্লক রাখে।

তবে ভালো লাগাও কম নয়, এটার নোটিফিকেশন সিস্টেম খুব ভালো লাগে। আপডেটগুলো অ্যাপসেন্টারে সুন্দরভাবে আসে। মানে পুরো ইকোসিস্টেমটা বেশ। Picture in Picture মোডটা বেশ কাজের। কোন উইন্ডোর সিলেক্টেড অংশ স্ক্রিনে রেখে দিতে পারবেন এর মাধ্যমে। যেমন, হয়ত আপনি গিম্পে ইউটিউবে কোন টিউটোরিয়াল দেখে লোগো ডিজাইন করছেন, এসময় ফায়ারফক্সের ইউটিউবের ভিডিও অংশটুকু আপনি এক পাশে রেখে দিতে পারবেন।

সবশেষে, যদি আপনি মিনিমাল, সুন্দর এবং সিম্পল কিছু চান, এলিমেন্টরী খুব ভালো। তবে যদি ঝামেলামুক্ত কিছু চান, আমার মনে হয়, এখানে যাওয়া ঠিক হবে না।

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট

এলিমেন্টরীর ওয়েবসাইটে গেলে যেকোন মূল্যে এলিমেন্টরী কিনে নিতে পারবেন। ধরেন, $1, $10, $100 যা খুশি। চিন্তায় পড়ে গেলেন? নো চিন্তা, Custom ঘরে লিখুন ০ এবং তাহলে আপনি ফ্রিতে এটা পেয়ে যাবেন।

ফেইসবুক আমি

 

 

4 thoughts on "লিনাক্স এর ছুয়া –চলুন লিনাক্স এর মন কাড়ানো কর্নেল Elementary OS সম্পর্কে যানা যাক। ( বিস্তারিত)"

  1. RJ JAHID Contributor says:
    একে লিনাক্স ইতিহাসের সবচেয়ে বাজে ডিস্ট্রো বলা হয়।শুধুমাত্র ইউজার ইন্টারফেস দিয়েই তাকে ভালো বলা যায়না।এটা উবুন্টুর উপরে বেজ করা।ডেবিয়ান বেসেড ডিস্ট্রোগুলো হতে হয় উবুন্টুর মতোই।
    যদি এটা আর্চের উপরে বেজ করে হতো তাহলে অনেক ভালো হতো।
    এলিমেন্টারি থেকে ডিপিন ইউজার ইন্টারফেস বেশী ভালো আর সবচেয়ে সুন্দর ডিস্টোও বলা যায়।
    যাইহোক আমি ম্যাঞ্জারো ইউজার।এবং আমার কাছে এটাই সবার সেরা।


    1. Sajeeb Ahmed Sajeeb Ahmed Author Post Creator says:
      আপনার সাথে আমি একমত। আমি এখন পরজন্ত ১৫+ ডিস্ট্র ব্যাবহার করেছি কিন্তু তার মাঝে ইউজার ইন্টারফেস এর দিক দিয়ে এলেমেন্টরি আমাকে মুগ্ধ করে
  2. RJ JAHID Contributor says:
    আমি ২৭টির মতো ডিস্ট্রো ব্যবহার করেছি।ডেবিয়ান বেসেড ডিস্ট্রোগুলোর মধ্যে উবুন্টু,জরিন ওএস,ডিপিনই সেরা লেগেছে।ব্যক্তিগতভাবে আমি ডেবিয়ানকে অপছন্দ করি।সবসময় আর্চ বেসেড ডিস্ট্রোকে আমার পছন্দের প্রথমে রাখি।ম্যাঞ্জারোই সেরা।
    আবার ফেডোরা/সোলুসও ভালো লেগেছিলো।
    এলিমেন্টারি শুধুমাত্র প্রথমেই আকর্ষণ করে।পরেই বুঝা যায় এর অবস্থা😆😆।আমি এর ৩টি ভার্সন ব্যবহার করে দেখেছিলাম।

Leave a Reply