সিএমএস হিসেবে ওয়ার্ডপ্রেসের গুরুত্ব বর্ণনাতীত। সিএমএস ব্যবহার করে বর্তমানে যেসব ওয়েবসাইট তৈরি হয় তার প্রায় ৬০ শতাংশই ওয়ার্ডপ্রেসে তৈরি হচ্ছে। এটি ব্যবহার সহজ হওয়ার ব্যক্তিগত থেকে শুরু করে কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেসে তৈরি করছে।

ওয়ার্ডপ্রেসের এই জনপ্রিয়তায় হ্যাকারদের টার্গেটেও রয়েছে এ ধরণের ওয়েবসাইট। আর সে কারণে একটি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটের নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করাও জরুরী।

WordPress-video-tutorial-TechShohor ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের ১০ বেসিক নিরাপত্তা

যারা নতুন ওয়ার্ডপ্রেস সাইট তৈরি করেছেন তাদের বেসিক কিছু নিরাপত্তা নিশ্চিত করা প্রয়োজন। ভালোমানের ডেভেলপার না হলেও যে কেউ এসব নিরাপত্তা মেনে চলতে পারেন। ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটের তেমনই বেসিক কিছু নিরাপত্তার বিষয় এখানে উল্লেখ করা হলো।

ভালোমানের ওয়েব হোস্টিং ব্যবহার করা
অনেকেই খরচ কমের কারণে নিন্মনামের কিংবা বেনামি ওয়েব হোস্টিং ব্যবহার করেন। এসব ওয়েব হোস্টিং সেবাদাতারা প্রতিটা সাইটের জন্য ভালো নিরাপত্তা দিতে পারে না। যার ফলে দেখা যায় প্রায়ই এসব হোস্টিংয়ে থাকা ওয়েবসাইট হ্যাকিংয়ের শিকার হয়। তাই যেসব হোস্টিং সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ভালো ও সাইটের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে তাদের সেবা নেওয়া উচিত।

ওয়ার্ডপ্রেস আপডেটেড রাখা
প্রায়ই ওয়ার্ডপ্রেস তাদের বিভিন্ন ত্রুটি সমাধান ও ফিচার আনার মাধ্যমে নতুন আপডেট ছাড়ে। ওয়ার্ডপ্রেস সাইটকে এসব আপডেট আসার পরই আপডেট করা ভালো। পুরাতন সংস্করণগুলোর নানা ত্রুটি খুঁজে বের করে হ্যাকাররা সেটি হ্যাকিং করার চেষ্টা করে। তাই নিয়মিত ওয়ার্ডপ্রেস আপডেট রাখতে অনেকাংশেই নিরাপদ থাকা যায়।

শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা
অনেকেই মনে রাখার সুবিধার্তে নাম, মোবাইল নাম্বার কিংবা জন্মতারিখ দিয়ে পাসওয়ার্ড ব্যবহার করেন। এগুলো ঠিক নয়। পরিচিত কিংবা হ্যাকাররা বিভিন্ন মাধ্যমে এসব তথ্য জেনে কিংবা অনুমান করে আপনার ওয়েবসাইট হ্যাক করতে পারে। তাই এমন কোনও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করতে হবে যেটি আপনারও যাতে মনে রাখতে কষ্ট হয়। অক্ষর, সংখ্যা ও সাংকেতিক চিহ্ন দিয়ে পাসওয়ার্ড দিতে পারেন। তাহলে আপনার সাইটের নিরাপত্তা অনেকাংশেই নিশ্চিত হবে।

ইউজার নেইম হিসেবে ‘অ্যাডমিন’ ব্যবহার না করা
ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করার সময় ডিফল্ট নেইম হিসেবে Admin দেওয়া থাকে। অনেকেই এটি পরিবর্তন করেন না। তবে সাইটের নিরাপত্তায় Admin ব্যবহার না করাই ভালো। কারণ হ্যাকাররা সাধারণত ডিফল্ট নেইম দিয়েই সাইট হ্যাকিংয়ের চেষ্টা করে। এক্ষেত্রে প্রথমে Admin দিয়ে লগইন করে নতুন একটি ইউজার নেইম তৈরি করতে হবে। নতুন ইউজার নেইমটিকে পূর্ণ অ্যাকসেস বা অ্যাডমিনিস্ট্রেশন দিতে হবে। এরপর নতুন ইউজার নেইম দিয়ে লগইন করে Admin ইউজারটি মুছে দিতে হবে।

স্বল্প মূল্যে সাইট, হোস্টিং, ডমেইন, Paypal একাউন্ট, মাষ্টার কার্ড, ফেসবুক পেজ প্রমোট করতে অথবা সাইটে SEO করাতে যোগাযোগ করুন 01785829489

3 thoughts on "WordPress সাইটের কয়টি বেসিক টিপ্স জেনে নিন."

  1. Mehedi Hasan Roky Mehedi Contributor says:
    কিভাবে সাইটকে আপডেট রাখবো
  2. Selfless Boy Contributor says:
    vai kivabe wordpress site banano post din plz

Leave a Reply